২৭শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ৯:২০
শিরোনাম:

মুগদা হাসপাতালে আগুন, আহত ৯

মুগদা জেনারেল হাসপাতালের ছয় তলায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় হাসপাতালটির ৯ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে কেউ কেউ আগুনে দগ্ধ হয়েছেন, আবার কেউ কেউ হুড়োহুড়ি করে বের হতে গিয়ে ব্যাথা পেয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) মুগদা থানার উপ-পরিদর্শক প্রানতোষ বণিক ঢাকা পোস্টকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।প্রানতোষ বণিক বলেন, মুগদা জেনারেল হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটে। এসি বিস্ফোরণ থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। হাসপাতালের ৬ তলায় নির্মাণাধীন আইসিইউ ফ্লোরে আগুনটি মূলত ছড়ায়।

তিনি বলেন, আইসিইউ নির্মাণাধীন থাকায় সেখানে কোনো রোগী ছিল না। তবে এ ঘটনায় মোট ৯ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে এক জন সিনিয়র নার্স রয়েছেন। দুই জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে এসেছেন। আর বাকি সাত জনের মধ্যে কয়েকজনকে ঢামেকে ও কয়েকজনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে এ ভর্তি করা হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেলে যারা এসেছেন তারা হলেন, শাহিনা আক্তার (৪০), মেরি আক্তার (২৬), মো. আলমঙ্গীর হেসেন (২৮), সাইদুল ইসলাম (৩৮), ওমর ফারুক (৩০)।

শেখ হাসিনা বার্নে যারা এসেছে- রুমি খাতুন (৪০), মনিকা প্যারেরা (৪০), মো. নাজমুল হোসেন (২১), মো. জহিরুল হক মজুমদার (৪৫), মেরি আক্তার (২৬)।

আহদের মধ্যে মেরি আক্তার ২০ শতাংশ, মনিকা প্যারেরা ৬ শতাংশ, রুমি খাতুন ৮ শতাংশ, জহিরুল হক মজুমদার ৩০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছেন। নাজমুল হোসেন ইনহ্যালেশন ইনজুরি।

এদের মধ্যে মনিকা প্যারেরা ও জহিরুল হক মজুমদারকে আইসিইউতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় মুগদা জেনারেল হাসপাতালের ছয় তলায় আগুন লাগার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে দুপুর ১২টা ৪৩ মিনিটে ৭টি ইউনিট পৌঁছায়। পরে ১২টা ৫৮ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার খালেদা ইয়াসমিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।তিনি আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। আমাদের টিম হাসপাতালের ভেতরে অভিযান পরিচালনা করছে।