৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ১০:২৬

হজের দেশভিত্তিক কোটা ঘোষণা করলো সৌদি আরব

এবার ১০ লাখ মুসল্লি পবিত্র হজে অংশ নিতে পারবেন বলে আগেই জানিয়েছিল সৌদি আরব। তবে কোন দেশের কত সংখ্যক মুসল্লি হজে অংশ নিতে পারবেন সেই কোটা ঘোষণা করেছে দেশটির হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। ঘোষিত কোটা অনুসারে, বাংলাদেশ থেকে ৫৭ হাজার ৫৮৫ জন মুসল্লি অংশ নিচ্ছেন এবারের হজে। শনিবার এক প্রতিবেদনে এখবর জানিয়েছে সৌদি গেজেট।

সৌদির হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইন্দোনেশিয়া থেকে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ১ লাখ ৫১ জন মুসল্লি এবার হজে অংশ গ্রহণ করবেন। দেশ হিসেবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মুসল্লি অংশ নেবেন পাকিস্তান থেকে। দেশটি থেকে ৮১ হাজার ১৩২ জন এবার হজ করতে পারবেন। তৃতীয় অবস্থানে ভারতের ৭৯ হাজার ২৩৭ এবং চতুর্থ অবস্থানে বাংলাদেশ থেকে অংশ নেবেন ৫৭ হাজার ৫৮৫ জন মুসল্লি। এবারের হজে সবচেয়ে কম সংখ্যক ২৩ জন মুসল্লি অংশ নিচ্ছেন আফ্রিকার অ্যাঙ্গোলা থেকে।

মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে, এ বছর ১০ লাখ মানুষ হজের সুযোগ পাবেন। এর মধ্যে ৮৫ শতাংশ বিভিন্ন দেশ থেকে হজে অংশ নেওয়ার অনুমতি পাচ্ছেন। বাকিরা অংশ নেবেন সৌদি আরব থেকে।

কোভিড পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় দুবছর পর এবার একসঙ্গে এত বেশি সংখ্যক মুসল্লিকে হজ পালনের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। এবছর পবিত্র হজে অংশ নিতে হলে শর্তজুড়ে দিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। প্রথমত হজ যাত্রীদের বয়স ৬৫ এর বেশি হতে পারবে না। দ্বিতীয়ত করোনার দুই ডোজ টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক।

এছাড়া হজ পালনের জন্য সৌদি আরবের উদ্দেশে যাত্রার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর টেস্টের নেগেটিভ সনদ থাকতে হবে। হজ পালনের সময়ও যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার তাগিদ দিয়েছে সৌদি আরব।