৩১শে মে, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ৬:৫৪

ক্রীড়া মন্ত্রণালয়রে তদন্তে ধরা পড়লো বাফুফরে র্আথকি কলেঙ্কোরি

র্স্পোটস ডস্কে: গত বছর দশেরে ফুটবলে বড় সাফল্য এনছেলিো লাল-সবুজরে ময়েরো। কন্তিু পুরো দশেকে বস্মিতি করে চলতি বছরে ময়িানমারে অলম্পিকি বাছাইয়ে খলেতে সাফ চ্যাম্পয়িন নারী ফুটবল দলকে র্আথকি সংকটে পাঠাতে র্ব্যথ হয়ছেে বাফুফ।ে বাফুফে এমন সদ্ধিান্তকে মনেে নতিে পারছনে না ক্রীড়া মন্ত্রী। এদকিে বাফুফরে এমন কাণ্ডে সমালোচনায় যোগ দয়িছেনে সংসদীয় কমটি।ি মন্ত্রণালয়কে তদন্ত করার সুপারশি করছেলিনে তারা। যার শুরুটা অলম্পিকি বাছাই খলেতে নারী দলরে ময়িানমার না যাওয়া থকে।ে এতইে বপিাকে পড়ছেে বাফুফ,ে র্আথকি অঙ্করে সঠকি হসিাব দতিে র্ব্যথ ফডোরশেন। চ্যানলে২৪

ময়েদেরে ময়িানমার সফররে জন্য র্জাসি থকেে মোজা, জুতা, টকিটি থকেে ভসিা ফ,ি জরুরী খরচ আবার অন্যান্য এমন নানা খাতে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়রে কাছে র্পূণাঙ্গ র্অথ বরাদ্দ চয়েছেলি ফুটবল ফডোরশেন। সবমলিে যার অংক ৯২ লাখ টাকা।

২৯ র্মাচ আনুষ্ঠানকি ভাবে সফর বাতলিরে ঘোষণা দনে বাফুফ।ে পরদনি সফর বাতলিরে বস্তিারতি ব্যাখ্যা দনে সাধারণ সম্পাদক। যখোনে প্রথমে প্রায় কোটি টাকার কথা বললওে পরে সফরে ৬০ লাখ টাকা ব্যয়রে কথা বলনে আবু নাঈম সোহাগ। বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ বলনে, মনিমিাম আমাদরে এখানে ৫০ হাজার ডলাররে মতো টাকা দরকার ছলি। বাফুফে প্রথমে বলছেলি র্অথরে একাংশ তাদরে কাছে আছ,ে বাকটিা সরকার ও স্পন্সরদরে কাছে আবদেন করওে মলেনে।ি কন্তিু ক্রীড়া মন্ত্রণালয়রে কাছে র্অথ চয়েে যে চঠিি দয়িছেে বাফুফে তা বলছে ভন্নিকথা। সখোনে ৯২ লাখ টাকার হসিাব দয়িছেে ফুটবল ফডোরশেন।

যনে নতুন এক সংসার গড়ার চষ্টো। ম্যাচ র্জাস,ি প্র্যাকটসি র্জাস,ি ট্রাভলে টি র্শাট, কডেস, গোলরক্ষকদরে গ্লভস সব আছ।ে শুধু ক্রীড়া সামগ্রী খাতে খরচ ধরা হয়ছেে ৮ লাখ ৪ হাজার ২৫০ টাকা, বাদ যায়নি মোজাও। ব্যাগ, ববিস, বলও আছে তালকিায়। কন্তিু এসব পন্য দয়িে থাকে বাফুফরে চুক্তবিদ্ধ স্পন্সর প্রতষ্ঠিান ঢাকা ব্যাংক। এছাড়াও ৩১ জনরে দলরে বমিান ভাড়া, ভসিা ফি ও ইনসুরন্সেরে জন্য ধরা হয়ছেে প্রায় ৪২ লাখ ৬৭ হাজার ১৫০ টাকা। যা র্বতমান খরচরে তুলনায় জনপ্রতি ৫০ হাজার বশে।ি যে হসিাব নয়িওে আছে প্রশ্ন। সবকছিুকইে হাস্যকর বলছনে ক্রীড়াঙ্গনরে অভভিাবক। ক্রীড়া প্রতমিন্ত্রী জাহদি আহসান রাসলে বলনে, র্আথকি বষিয়ে আরো অনকে বশেি স্বচ্ছতা আনা দরকার।