২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১২:৫৯
শিরোনাম:

কয়লা সংকটে বন্ধ পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের একটি ইউনিট

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি : কয়লা সংকটে বন্ধ রয়েছে পায়রা তাপবিদুৎ কেন্দ্রের একটি ইউনিট। বাংলাদেশ ও চীনের যৌথ অংশীদারিত্বে নির্মিত এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র চলছে আমদানি করা কয়লা দিয়েছে।তবে এখন কয়লা সংকটের কারণে পাঁচদিন ধরে একটি উৎপাদন ইউনিট বন্ধ রাখা হয়েছে। বর্তমানে যে পরিমাণ কয়লা মজুদ আছে তা দিয়ে দ্বিতীয় ইউনিট চলবে আগামী ৩ জুন পর্যন্ত। কয়লা সংকটের করানে সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি। ফলে বিদ্যুৎ সংকটে পড়তে পারে পুরো দেশ।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, চিন ও বাংলাদেশের যৌথ বিনিয়োগে ২০২০ সালে পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র বানিজ্যিক কার্যক্রম শুরু করে।

কেন্দ্রটি চালানোর জন্য কয়লা কিনতে ঋণ দিয়ে আসছে চায়না ন্যাশনাল মেশিনারী ইমপোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট কোম্পানি (সিএমসি)। এপ্রিল পর্যন্ত কয়লার ৩৯০ মিলিয়ন ডলার বকেয়া বিল পরিশোধ না করায় কয়লা সরবরাহ বন্ধ করে দেয় সিএমসি। এতে কেন্দ্রটির ৬৬০ মেগাওয়াটের একটি ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। এতে নতুন করে কয়লা আমদানি শুরু হলেও কয়লা আসতে সময় লাগবে আরও ২৫ দিন । তাই ৪ জুন থেকে বন্ধ থাকবে পুরো বিদ্যুৎ উৎপাদন।

পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শাহ আব্দুল হাসিব সাংবাদিকদের জানান, বর্তমানে ৪০ হাজার টন কয়লার মজুদ আছে। আগামি ৩ থেকে ৪ জুন পর্যন্ত এই কয়লা দিয়ে দ্বিতীয় ইউনিট চালাতে পারবো। তবে এটা একটি সাময়িক সংকট। আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে ফের কয়লা আমদানি করে বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি চালু করা যাবে।