২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১২:১৭
শিরোনাম:

নওগাঁর বদলগাছীতে পর্ণোগ্রাফি সংরক্ষণ, বিক্রয় এবং চোর চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার

মোঃ ফারুক হোসেন, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর বদলগাছীতে পর্ণোগ্রাফি সংরক্ষণ ও বিক্রয় চক্রের সদস্য এবং আন্তঃ জেলা সক্রিয় চোর চক্রের মূলহোতা পলাশসহ ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

গতকাল ১৯শে ডিসেম্বর-২৩ মঙ্গলবার রাত ৯ টায় বদলগাছী উপজেলার গোবরচাঁপা ও ভান্ডারপুর বাজার এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে। র‌্যাব-৫ জয়পুরহাট ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোঃ শেখ সাদিক এর নেতৃত্বে উপজেলায় পৃথক দুটি অভিযান পরিচালনা করা হয়। বুধবার ২০শে ডিসেম্বর-২৩ সকাল সাড়ে ৯টায় র‌্যাব-৫ জয়পুরহাট থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা যায়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- বদলগাছী উপজেলার দ্বারিশন গ্রামের মৃত লুৎফর রহমান এর ছেলে পলাশ হোসেন (৩৬), ভান্ডারপুর বাজারের মৃত নুরুল হুদা ছেলে জহুরুল ইসলাম (৪৩), লালুহার গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৩৯), আক্কেলপুর গ্রামের নূর মোহাম্মদের ছেলে মানিক হোসেন (২৭), ভোলার পালশা গ্রামেরমৃত আশরাফুল ইসলামের ছেলে হাসান আলী (৩২) এবং জয়পুরহাট জেলার বেলাল হোসেন এর ছেলে মোনাজাত হোসেন মোনা (৩০)।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- পলাশ হোসেন একজন চিহ্নিত আন্তঃ জেলা চোর চক্রের মূলহোতা। তার সহযোগী হিসেবে মোনাজাত হোসেন কাজ করতো। র‌্যাব-৫ জয়পুরহাট ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোঃ শেখ সাদিক এর নেতৃত্বে গোবরচাঁপা বাজার এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টায় পলাশ ও মোনাজাত সাদিয়া হার্ডওয়্যার এন্ড ইলেকট্রিক দোকান থেকে মালামাল চুরি করে পালানোর সময় গোরবচাঁপা বাজারে অবস্থানরত লোকজন তাদেরকে হাতেনাতে আটক করে র‌্যাবের নিকট সোপর্দ করে। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি কর্ণার সেল, তিনটি ডিজিডাল ওয়েস্ট, সাতটি ফিটিং পাইপ, ১০টি পিভিসি ফিল্টার, চারটি লোকাল পাইপ, ১০টি ফাইবার সিলিং উদ্ধার করা হয়।

অপরদিকে, ভান্ডারপুর বাজারে জহুরুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম, মানিক হোসেন ও হাসান আলী তাদের দোকানের নিজস্ব কম্পিউটার এর হার্ডডিস্ক এ অশ্লীল সিনেমা এবং গানের ভিডিও ক্লিপ আপলোড ব্যবসার পাশাপাশি পর্নোগ্রাফি সংরক্ষণ করত। পরে টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন ইলেকট্রিক ডিভাইসের মাধ্যমে স্থানীয় কিশোর ও স্কুল পডুয়া ছাত্রদের কাছে পর্নোগ্রাফি ভিডিও সরবরাহ করত। গোয়েন্দা দল অশ্লীল সিনেমা ও গানের ভিডিও ক্লিপ আপলোড ব্যবসার পাশাপাশি পর্নোগ্রাফি সরবরাহের বিষয়টি তদন্ত শুরু করে এবং তদন্তে এর সত্যতা পায়। গোপন সংবাদে রাত ৯টায় ভান্ডারপুর বাজারে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব-৫।

এসময় ভান্ডারপুর বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পর্নো ব্যবসায়ীদেরকে গ্রেফতার করে। পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃত আসামীদের আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বদলগাছী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।