৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ১০:৩৬

রাবি শিক্ষার্থীর শ্লীলতাহানীর চেষ্টার ঘটনায় আবারো বিক্ষোভ

সানজানা শ্রুতি,  রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সেই ছাত্রীকে শ্লীলতাহানীর চেষ্টার প্রতিবাদে আবারও চার দফা দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা। রোববার সকালে বিক্ষোভ মিছিল শেষে সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসনিক ভবনের সামনে এসে সমাবেশ করেন শিক্ষার্থীরা।
সমাবেশ শেষে উপাচার্য বরাবর চার দফা দাবি জানিয়ে প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমানের কাছে স্মারকলিপি জমা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।
শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হল- বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী চার্জশীট প্রদান থেকে শুরু করে দোষীর শাস্তি নিশ্চিত হওয়ার আগ পর্যন্ত সকল আইনি প্রক্রিয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নজরদারি করা, যৌন নিপীড়ন ভাইয়ের পক্ষে নির্লজ্জ সাফাই গাওয়া, নিপীড়িত শিক্ষার্থী নামে কুৎসা রটানো জন্য বিথীকা বণিকথা কে জনসম্মুখে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে চাপ দেয়া, যৌন হয়রানি প্রতিরোধ সেলকে কার্যকর করতে হবে পাশাপাশি সকল বিভাগ ও ক্যাম্পাসে প্রচারণা চালানো, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে প্রতিটি শিক্ষার্থী নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।
আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, ছাত্রীকে শ্লীলতাহানীর চেষ্টায় অভিযুক্ত ভাইকে সমর্থন দেওয়ায় বিথীকা বণিককে প্রাধ্যক্ষের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ায় প্রশাসনকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের আর যেন কোন শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির শিকার না হতে হয় সেজন্য এ ঘটনায় অভিযুক্তদের শাস্তি  নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত প্রশাসনকে সহযোগিতা করতে হবে।
শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, শ্লীলতাহানীর চেষ্টায় অভিযুক্ত ভাইকে সমর্থন দেওয়ায় সংস্কৃত বিভাগের শিক্ষক বিথিকা বণিককে জনসমক্ষে ক্ষমা চাইতে হবে পাশাপাশি আমাদের দাবিগুলো অনতিবিলম্বে পূরণ করতে হবে। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রশাসনকে আরো সোচ্চার হওয়ার আহবান জানান শিক্ষার্থীরা।
প্রসঙ্গত, গত ২৪ সেপ্টেম্বর নগরের যোজক টাওয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজিলাতুন্নেছা হলের প্রাধ্যক্ষ বিথীকা বণিকের বাসায় যৌন হয়রানি শিকার হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের এক ছাত্রী। এ ঘটনায় শিক্ষক বিথিকা বণিকের ভাই অভিযুক্ত শ্যামল বণিককে পুলিশ আটক করে। শিক্ষার্থীরা প্রাধ্যক্ষ পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে বিক্ষোভ করলে গত ২৭ সেপ্টেম্বরে প্রশাসন বিথিকা বণিককে তার প্রাধ্যক্ষ পদ থেকে অব্যহতি দেয়।