২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ৮:১৩
শিরোনাম:

সমাজভিত্তিক আশ্রয়কেন্দ্র ও দর্যোগসহনশীল আবাসন নির্মানের দাবি উপকূলবাসীর

নইন আবু নাঈম, বাগেরহাট ঃ উপকূলীয় বাগেরহাটের শরণখোলার মানুষ প্রতিনিয়ত ঝড়-জলোচ্ছাসের সঙ্গে যুদ্ধ
করে বেঁচে থাকে। দুর্যোগ তাদের নিত্যসঙ্গী। সিডর, আইলা, বুলবলের মতো ভয়াবহ দুর্যোগ এ উপজেলা ল-ভ- হলেও আজও গড়ে ওঠেনি টেকসই আবাসন। নেই পর্যাপ্ত সাইক্লোন শেল্টার। দুর্যোগ এলে দুরদুরান্তে গিয়ে আশ্রয় খোঁজে মানুষ। তাই ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে জানমাল রক্ষার জন্য সমাজভিত্তিক আশ্রয়কেন্দ্র ও দর্যোগসহনশীল আবাসন নির্মানের জোরালো দাবি উঠেছে উপকূল থেকে।

মঙ্গলবার জাপানের টোকিওর “শাপলানীড়” নামের একটি আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধি দল দেশীয় উন্নয়ন সংস্থা জাগ্রত যুবসংঘ (জেজেএস) পরিচালিত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম ও সমন্বয় বিষয়ক কর্মশালা পরিদর্শনকালে অংশগ্রহনকারীরা এ দাবি জানান। শরণখোলা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন ইউএনও সরদার মোস্তফা শাহিন। এসময় জাপানের শাপলানীড়ের চেয়ারপর্সন
কাজুতাকা সাকাগুচি, ডি আর আর এক্সপার্ট মিস কাইয়োমি নাকামুরা, শাপলানীড়ের বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর মিস তোমোকো উচিয়ামা এবং জেজেএস’র নির্বাহী পরিচালক এটিএম জাকির হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালায় দুর্যোগ মোকাবেলায় টেকসই ও উন্নত কার্যক্রম বাস্তবায়নের দাবি নিয়ে আলোচনা করেন সাউথখালী ইউপির চেয়ারম্যান মো. মোজাম্মেল হোসেন, খোন্তাকাটাক ইউপির চেয়ারম্যান জাকির হোসেন খান মহিউদ্দিন, শরণখোলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ইসমাইল হোসেন লিটন প্রমূখ। কর্মশালা পরিচালনা করেন জেজেএস’র প্রকল্প সমন্বয়কারী আব্দুল মালেক।