২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১০:০৭
শিরোনাম:

ইন্না লিল্লাহির পরিবর্তে কি জয়বাংলা বলতে হবে, প্রশ্ন রিজভীর

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেন, সংবাদ মাধ্যমে দেখছি জনাব দেলওয়ার হোসেন সাঈদী সাহেবের মৃত্যুতে ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী পড়েছে এবং এটা পড়ার কারণে আওয়ামী লীগের ছাত্রলীগের অনেক নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমার কথা হল আমি ব্যক্তিগতভাবে পছন্দ করি আর না করি আমাদের ধর্মের একটি বিষয় আছে এটি একটি কালচার। কারো মৃত্যু সংবাদ শুনলে ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন এটি পড়তে হয়। আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী এটি পড়েছে। এই কারণে এখন প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন আপনি কি সাঈদীর জন্য ইন্নালিল্লাহি পড়াতে বহিষ্কার করলেন? তাহলে কি ইন্নালিল্লাহির পরিবর্তে জয় বাংলা বলতে হবে? এইটা একটা বড় প্রশ্ন জয় বাংলা বলেনি বলে বহিষ্কার করলেন।

মঙ্গলবার বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। দক্ষিণ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সদস্য সচিব তানভীর আহমেদ রবিন সহ-দলটির নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে এই বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি।

রিজভী বলেন, শেখ হাসিনা এমন একজন প্রধানমন্ত্রী উনি অনেক কিছুই পছন্দ করেন কিন্তু তার বিভিন্ন কর্মকান্ডে মনে হয়েছে তিনি ইসলামে যে সমস্ত কথা আছে এইটা মনে হয় উনি পছন্দ করেন না এটা আমার কাছে মনে হয়েছে।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, অবৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আরেকটি প্রতিহিংসার জায়গা বিএনপি এবং জিয়া পরিবার। সোমবার একজন প্রধানমন্ত্রী হয়ে যে সমস্ত কথা বলেছেন সেটা কি একজন প্রধানমন্ত্রী বলতে পারে?

তিনি আরো বলেন, আমি অবৈধ প্রধানমন্ত্রীকে বলতে চাই এই দেশে যদি গুমের প্রতীক হয়ে থাকে সেটি হলো আওয়ামী লীগ, খুনের প্রতীক আওয়ামী লীগ, অপহরণের প্রতীক আওয়ামী লীগ, এই দেশে প্রথম ক্রসফায়ারের প্রতীক আওয়ামী লীগ। এই ধারা এখনো বন্ধ হয়নি, চলছে। গুম, খুন, অপহরণের জন্য একমাত্র দায় আওয়ামী লীগের এবং যারা তাদেরকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাদের।

রিজভী বলেন, শেখ হাসিনা আপনার হাতে মিডিয়া, আদালত, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সবকিছু ব্যবহার করেছেন গণতন্ত্রের পক্ষের কর্মীদের বিরুদ্ধে। কিন্তু এগুলো করে কোন লাভ হবে না আপনার সিংহাসন থাকবে না। জগণনের উত্তাল আন্দোলনের মাধ্যমে আপনার পতন অনিবার্য।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। সম্পাদনা: শামসুল হক বসুনিয়া