৫ই মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ৯:২১
শিরোনাম:

গৃহবধূকে মাথা ন্যাড়া করে ঘোল ঢালার ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩

মোঃ ফারুক হোসেন, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ-

বদলগাছীতে অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত হওয়ার অভিযোগে, গৃহবধূকে সুদ্ধ করতে – মাথা ন্যাড়া করে ঢালা হল ঘোল

এ নাক্কার জনক ঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়ন এর গয়েশপুর গ্রামের বাঁশপাড়াতে। মথুরাপুর গয়েশপুর বাঁশপাড়া গ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পরিবার এর দুই সন্তানের জননী ও দিলীপ পাহান (৩৩) পিতা-মৃত সবিন্দ পাহান এর গৃহবধূর বিরুদ্ধে অভিযোগ সে এক মুসলিম যুবক কমল হোসেন পিতা- মাজেদুর (মগা) সাথে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়েছে এমন অভিযোগ তুলে ঐ গৃহবধূর মাথা ন্যাড়া করে মাথায় ঘোল ঢেলে শুদ্ধ করান সমাজপতিরা।

সোমবার ২৮ তারিখ সকাল ৯টারদিকে ঐ গৃহবধূর বাড়ির আঙিনায় প্রথমে গৃহবধূর মাথা ন্যাড়া করা হয় এরপর ন্যাড়া মাথায় ঘোল ঢেলে শুদ্ধ করার এ ঘটনাটি ঘটে। এসময় ঘটনাস্থলে উৎসুক লোকজন উপস্থিত ছিলেন। এব্যাপারে বক্তব্য জানতে চেষ্টাকরা হলেও সমাজপতিদের কাউকে পাওয়া যায়নি। গৃহবধূর প্রতিবেশী নারীরা দাবি করেন, একই গ্রামের মুসলিম যুবকের সঙ্গে ঐ গৃহবধূর অনৈতিক সর্ম্পক ছিলো এজন্য তার মাথা ন্যাড়া করে ঘোল ঢেলে শুদ্ধ করা হয়েছে। এমনকি গৃহবধূর স্বামীর সম্মতিতে সমাজপতিরা এ কাজটি করেছেন। ঘটনার খবর পেয়ে সংবাদকর্মীরা ঘটনাস্থল গৃহবধূর বাড়িতে গেলেও প্রথমে ঐ গৃহবধূকে ঘর থেকে বের হতে বাঁধাদেন তার প্রতিবেশী নারীরা। তবে এক পর্যায়ে গৃহবধূ শাড়ির আঁচল দিয়ে মাথা ঢেকে রেখে বলেন, আমার সঙ্গে কারো অনৈতিক সর্ম্পক ছিল না। সমাজপতিরা ভুল বুঝে আমার মাথা ন্যাড়া করে ঘোল ঢেলে দিয়েছেন। তবে কারো বিরুদ্ধে আমার কোন অভিযোগ নেই বলেও জানান তিনি।

এসময় প্রতিবেশী ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নারীরা জানান, ঐ গৃহবধূ দুই সন্তানের জননী। গ্রামের কমল হোসেনে নামে বিবাহিত মুসলমান যুবকের সাথে তার পরকীয়ায় সম্পর্ক ছিলো। মাত্র ১০-১২ দিন আগে নিজ বাড়িতে অনৈতিক সর্ম্পক করার সময় গৃহবধূকে তার স্বামী হাতে-নাতে ধরেন। এরপর গৃহবধূ তার বাবার বাড়িতে চলে যান। গত শনিবার গৃহবধূ তার বাবার বাড়ি থেকে স্বামীর বাড়িতে ফিরে আসেন। এরপর গৃহবধূকে শুদ্ধ করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেই সিদ্ধান্ত মোতাবেক সোমবার সকাল ৯টারদিকে গ্রামের লোকজনের উপস্থিতিতে গৃহবধূর বাড়ির আঙিনায় তাকে শুদ্ধ করার আয়োজন করা হয়। নাপিত ডেকে এনে গৃহবধূর মাথা ন্যাড়া করার পর মাথায় ঘোল ঢেলে দিয়ে তাকে শুদ্ধ করা হয়। এমনাকি ঐ গৃহবধূ ও তার স্বামীর সম্মতিতে এ কাজ করা হয়েছে। অপর প্রতিবেশী ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর এক নারী বলেন, শুদ্ধ করার সময় গ্রামের উৎসুক লোকজন উপস্থিত ছিলেন। শুদ্ধ করার রীতি আমাদের ধর্মে আছে। এছাড়া গৃহবধূ ও তাঁর স্বামী এ কাজে কোনো আপত্তি জানায়নি। এমন রীতি কোন গ্রন্থে আছে প্রশ্ন করা হলে কিছু উৎসুক জনতা সাংবাদিকদের উপর চড়াও হয়ে পালিয়ে যায়।

পরে রাত আনুমানিক ৯ টায় বাসন্তি রানী (২৩) স্বামী- দীলীপ পাহান, সাং গয়েশপুর, থানাঃ বদলগাছী, জেলাঃ নওগাঁ বাদি হয়ে বিবাদী ১। শ্রী বিমল পাহান (৩৮) পিতাঃ শ্রী জাওনা পাহান, ২। শ্রী সুবাস পাহান (৪৫) পিতাঃ মৃত- রমেশ পাহান, ৩। শ্রীমতি রঞ্জনা রানী (৪০) স্বামী- শ্রী সুবাস পাহান, ৪। শ্রীমতি শংকরি (৩৫) স্বামী-শ্রী নিরেন, সর্ব সাং-গয়েশপুর (বাঁশপাড়া), সর্ব থানাঃ বদলগাছী, ৫। শ্রী ভবেস (৫২) পিতাঃ মৃত-সুবল, সাং- ইনসিরা, থানাঃ ধামুইরহাট, এর নামে বদলগাছী থানায় মামলা দায়ের করেন। বদলগাছী থানার মামলা নং ২৮।

এ বিষয়ে বদলগাছি থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মুহাঃ আতিয়ার রহমান জানান, এঘটনায় (ভিকটিম) নারী বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন এবং আজ ২৯ আগষ্ট দুপুরে আসামীদের নওগাঁ জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়।